“মানুষ বাংলার মেয়েকে চায়, বহিরাগতদের নয়,” – নাগরা কাটায় অভিষেক।

- Advertisement -
- Advertisement -

সম্পা ভট্টাচার্য, মালবাজার(জলপাইগুড়ি) — মানুষ বাংলার মেয়েকে চায় বহিরাগতদের নয়, ” শনিবার ডুয়ার্সের নাগরাকাটায় এসে এই স্লোগান সামনে রেখেই ভাষনের সুচনা করেন তৃনমুল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ অভিশেক বন্দোপাধ্যায়।
শনিবার বিকেল ২.৩০ মিনিট নাগাদ অভিশেক বন্দোপাধ্যায় বাগডোগরা বিমানবন্দরে এসে পৌছান। সেখান থেকে হেলিকপ্টার যোগে বিকাল প্রায় ৩ টা নাগাদ নাগরাকাটা ইউরোপীয়ান ক্লাবের মাঠে এসে নামেন। প্রখর সুর্য্যের আলোয় মাঠে তখন লক্ষ মানুষের উচ্ছ্বাস। সবাই শ্রী বন্দোপাধ্যায়কে স্বাগত জানাতে উঠে দাড়ান। প্রবল উচ্ছ্বাস ও উদ্দিপনার মধ্যে দিয়ে মঞ্চে উঠে আসেন। মঞ্চে তাকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃনমুল কংগ্রেস সভাপতি কৃস্নকুমার কল্যানী, জেলা যুব তৃনমুল কংগ্রেস সভাপতি সৈকত চ্যাটার্জি সহ অন্যান্য। এদিন সভার শুরুতেই সৈকত চ্যাটার্জি দলত্যাগী বিধায়ক শুক্রা মুন্ডাকে মীরজাফর বলে অবিহিত করে বলেন, এই ডুয়ার্সের মাটিতে কোন মানুষ নিজের ছেলের নাম শুক্রা রাখবে না। এরপর সভার সঞ্চালক সৈকতবাবু মাইক্রোফোন তুলে দেন রাজ্যের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিশেক বন্দোপাধ্যায়ের হাতে।
মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে অভিশেক বন্দোপাধ্যায় প্রথমেই আজ রাজ্যে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মুখ দিয়ে দলের যে স্লোগানের সুচনা করা হয় সেই স্লোগান” মানুষ বাংলার মেয়েকে চায় ” উচ্চারণ করে অভিশেকবাবু তার ভাষনের সুচনা করেন ।
এদিন মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে প্রথম থেকেই বিজেপির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ওঠেন। তিনি বলেন, বাংলা তার মেয়েকেই চায়, বহিরাগত দের নয়।সাগর থেকে পাহাড় সর্বত্র মানুষ বাংলার মেয়েকে চাইছে। ওরা বলছে সোনার বাংলা গড়বে আগে সোনার গুজরাট,সোনার ত্রিপুরা, সোনার আসাম গড়ে দেখাক তারপর সোনার বাংলা গড়ে দেখাবে। মিথ্যা বলে চলছে বিজেপি। আজ দিল্লির অন্যায়ের বিরুদ্ধে একাই লড়ছেন বাংলার মেয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়। সেই মেয়েকে কি আপনারা চান না।
শুধু দিল্লির নেতাদের নয়, বিজেপির রাজ্যের নেতাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে বলেন, ওরা মা দুর্গাকে শ্রদ্ধা জানায় না। মা দুর্গাকে অসন্মান করে ওরা বাংলা সংস্কৃতি কিভাবে বুঝবে। শুধু নেতাদের সমালোচনাই নয়, পেট্রোপন্যের ক্রমাগত বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বিজেপির সমালোচনা করেন।

পরিশেষে বলেন, এই নাগরাকাটায় স্থানীয় ভুমিপুত্রকে প্রার্থী করা হবে আমরা স্থানীয়দের গুরুত্ব দেব। এদিন সভায় উপস্থিত ছিলেন সাংসদ শান্তুনু সেন, জেলা সভাপতি কৃস্নকুমার কল্যানী, জেলা পরিষদের সহ সভাপতি দুলাল দেবনাথ, শ্রমিকনেতা অলোক চক্রবর্তী, আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি মৃদুল গোস্বামী, সৌরভ চক্রবর্তী প্রমুখ। এদিন সভায় একাধিক জেলা থেকে লক্ষাধিক মানুষ সমবেত হয়েছিলেন।

- Advertisement -

Latest news

পেট্রাপোল সীমান্তে পালিত হল ২১শে ফেব্রুয়ারী ভাষা দিবস।

গ্রাম বাংলাঃ- আজ ২১শে ফেব্রুয়ারী, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২সালের আজকের দিনে বর্তমান বাংলাদেশে মাতৃভাষার জন্য আন্দোলন করে শহীদ হয়েছিলেন বীর সন্তানেরা। সেই...
- Advertisement -

ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বট পাতার উপর শিল্পকর্ম এক ছাত্রের।

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদীয়া:- ১৯৪৭ সালের নভেম্বর-ডিসেম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু হলেও, ১৯৫২ সালের আজকের দিন অর্থাৎ একুশে ফেব্রুয়ারি (৮ই ফাল্গুন) বৃহস্পতিবার পূর্ব পাকিস্তানের...

দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান, চালু হল বাঁকুড়া মশাগ্রাম ট্রেন চলাচল।

বাঁকুড়াঃ দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান, শুরু হল বাঁকুড়া মসাগ্রাম ইলেকট্রিক ট্রেন চলাচল। করোনা পরিস্থিতি এবং লকডাউনের ফলে দীর্ঘ কয়েক মাস বাঁকুড়া মসাগ্রাম ট্রেন...

হাতির হামলার প্রতিবাদে পথ অবরোধ।

দেবব্রত বাগ, ঝাড়গ্রামঃ- হাতির হামলার প্রতিবাদে পথ অবরোধ করে জনতা।  অবরোধ তুলতে গেলে জনতা ও পুলিশ বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। আর এই অবরোধের...

Related news

পেট্রাপোল সীমান্তে পালিত হল ২১শে ফেব্রুয়ারী ভাষা দিবস।

গ্রাম বাংলাঃ- আজ ২১শে ফেব্রুয়ারী, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২সালের আজকের দিনে বর্তমান বাংলাদেশে মাতৃভাষার জন্য আন্দোলন করে শহীদ হয়েছিলেন বীর সন্তানেরা। সেই...

ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বট পাতার উপর শিল্পকর্ম এক ছাত্রের।

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদীয়া:- ১৯৪৭ সালের নভেম্বর-ডিসেম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু হলেও, ১৯৫২ সালের আজকের দিন অর্থাৎ একুশে ফেব্রুয়ারি (৮ই ফাল্গুন) বৃহস্পতিবার পূর্ব পাকিস্তানের...

দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান, চালু হল বাঁকুড়া মশাগ্রাম ট্রেন চলাচল।

বাঁকুড়াঃ দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান, শুরু হল বাঁকুড়া মসাগ্রাম ইলেকট্রিক ট্রেন চলাচল। করোনা পরিস্থিতি এবং লকডাউনের ফলে দীর্ঘ কয়েক মাস বাঁকুড়া মসাগ্রাম ট্রেন...

হাতির হামলার প্রতিবাদে পথ অবরোধ।

দেবব্রত বাগ, ঝাড়গ্রামঃ- হাতির হামলার প্রতিবাদে পথ অবরোধ করে জনতা।  অবরোধ তুলতে গেলে জনতা ও পুলিশ বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। আর এই অবরোধের...
- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here