বাঁকুড়ার বজ্রপাতে মৃতদের পরিবারের হাতে সরকারী সহায়তা তুলে দিলেন মন্ত্রী।

- Advertisement -
- Advertisement -

বাঁকুড়া:- গতকাল বাঁকুড়ায় এসে বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের সাথে দেখা করে গেছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একাধিক মন্ত্রী,বিধায়ক। এরপর আজও বাঁকুড়ায় বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালো পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

গতকাল রতে বাঁকুড়া রানিবাঁধ থানা এলাকার বজ্রাঘাতে মৃত দুটি পরিবারের সঙ্গে দেখা করে সরকারি এবং তৃণমূলের দলীয় তরফে ক্ষতিপূরণ তুলে দেওয়া হয়েছিল। আজ আরও তিনটি পরিবারের সঙ্গে দেখা করে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে দু’লক্ষ টাকা এবং তৃণমূল দলের পক্ষ থেকে আরও দু লক্ষ টাকা মোট চার টাকা তুলে দেওয়া হল বজ্রাঘাতে মৃত পরিবারগুলির হাতে।

আজ বাঁকুড়া সার্কিট হাউস থেকে বের হয়ে প্রথমে বাঁকুড়া ইন্দপুর থানা এলাকার গৌউরবাজার গ্রামে বজ্রাঘাতে মৃত মনোরঞ্জন মালের বাড়িতে যান সেচমন্ত্রী মানস ভুঁইয়া ও সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার। পরে ওই একই গ্রামের মৃত দয়াময় ডাঙ্গরের বাড়িতে যান দুই সদস্যের প্রতিনিধিদল। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাঁকুড়ার রানিবাঁধ এর বিধায়ক ও খাদ্য দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী জ্যোৎস্না মান্ডি, তালডাংরা বিধায়ক অরূপ চক্রবর্তী, রাইপুরের বিধায়ক মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু, মহকুমা শাসক খাতড়া, ভিডিও ইন্দপুর সহ প্রশাসনের অন্যান্য আধিকারিকরা। সেখানেই মৃতের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয় আর্থিক সাহায্য। আগামী দিনে কিভাবে অন্যান্য ভাতা ও সরকারি প্রকল্পে বজ্রাঘাতে মৃত মানুষগুলির পরিবারের সদস্যদের ব্যবস্থা করে দেওয়া যায় সে ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে প্রশাসনিক তরফে সেকথাও পরিবারদের জানানো হয়। এছাড়াও ওই গৌউরবাজার গ্রামেরই বজ্রাঘাতে আহত এক ব্যক্তি বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর আজই বাড়িতে ফিরেছে, তার সঙ্গে দেখা করে এই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। এরপর তারা বেরিয়ে যায় বড়জোড়ায় রাজমাধবপুরে বজ্রাঘাতে নিহত মাগারাম গরাই এর বাড়ির উদ্দেশ্যে।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সেচ মন্ত্রীর দাবি করেন একদিনের মধ্যে আর্থিক সাহায্য নিয়ে আমরা এসেছি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃনমূল সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথামতো। বাংলা এবং বাঙালিকে যারা অবহেলা করেছিলেন। গলাটিপে তার শ্বাস বন্ধ করার চেষ্টা করেছিলেন রাজনৈতিক এবং প্রশাসনিক ভাবে। তাদের আজ দেখা যাচ্ছে না বলেই বিরোধী বিজেপি কে কটাক্ষ করেন মন্ত্রী। এই পরিবারগুলির কিভাবে পাশে থাকবে সরকার সে প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী দাবী পরিবারগুলিকে সর্বতোভাবে পাশে থাকার চেষ্টা করা হচ্ছে সরকার এবং দলীয় ভাবে। প্রকৃতিকে আটকানোর কোনো ব্যবস্থা নেই। তবে সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টা হচ্ছে। আগামীকাল এবং আগামী ২৬ তারিখ ভারি বৃষ্টিপাত ও ভরা কোটাল এর জেরে রাজ্যে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ দিয়েছেন কোনরকম ভাবে অবহেলা বরদাস্ত করা হবে না।নিয়ম নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে হবে বলেও দাবি করেন মন্ত্রী।

- Advertisement -

Latest news

আকাশ মেঘলা, হালকা বৃষ্টি হাওড়ায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা, হাওড়াঃ- অমাবস্যার ভরা কোটালের ফলে গঙ্গার জমস্তর বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে গঙ্গার জলস্তর বাড়লে নিচু এলাকা ভাসতে পারে। এর...
- Advertisement -

বাঁকুড়ার বজ্রপাতে মৃতদের পরিবারের হাতে সরকারী সহায়তা তুলে দিলেন মন্ত্রী।

বাঁকুড়া:- গতকাল বাঁকুড়ায় এসে বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের সাথে দেখা করে গেছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একাধিক মন্ত্রী,বিধায়ক। এরপর আজও বাঁকুড়ায় বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের পাশে...

নদীয়ার চাপড়ায় পুলিশকর্মী কে গুলি করে হত্যার চেষ্টা।

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদীয়া :-চাপড়ার বড় আন্দুলিয়ায় এক পুলিশকর্মীকে খুনের চেষ্টা 2 ব্যক্তির। চালানো হয় গুলি ঘটনাটি ঘটেছে চাপড়া থানার বড় আন্দুলিয়া পেট্রোল...

বাংলায় করোনা সংক্রমণ এর জন্য দায়ী কে? জানালেন দোলা সেন।

কল্যাণ মণ্ডল, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ- বাংলায় করোনা সংক্রমণ বাড়ানোর পেছনে কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব সম্পূর্ণ দায়ী।...

Related news

আকাশ মেঘলা, হালকা বৃষ্টি হাওড়ায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা, হাওড়াঃ- অমাবস্যার ভরা কোটালের ফলে গঙ্গার জমস্তর বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে গঙ্গার জলস্তর বাড়লে নিচু এলাকা ভাসতে পারে। এর...

বাঁকুড়ার বজ্রপাতে মৃতদের পরিবারের হাতে সরকারী সহায়তা তুলে দিলেন মন্ত্রী।

বাঁকুড়া:- গতকাল বাঁকুড়ায় এসে বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের সাথে দেখা করে গেছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একাধিক মন্ত্রী,বিধায়ক। এরপর আজও বাঁকুড়ায় বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারের পাশে...

নদীয়ার চাপড়ায় পুলিশকর্মী কে গুলি করে হত্যার চেষ্টা।

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদীয়া :-চাপড়ার বড় আন্দুলিয়ায় এক পুলিশকর্মীকে খুনের চেষ্টা 2 ব্যক্তির। চালানো হয় গুলি ঘটনাটি ঘটেছে চাপড়া থানার বড় আন্দুলিয়া পেট্রোল...

বাংলায় করোনা সংক্রমণ এর জন্য দায়ী কে? জানালেন দোলা সেন।

কল্যাণ মণ্ডল, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ- বাংলায় করোনা সংক্রমণ বাড়ানোর পেছনে কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্ব সম্পূর্ণ দায়ী।...
- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here